এই ওয়েবসাইটে আর আপডেট হবে না। আমাদের নতুন সাইট Parstoday Bangla
শুক্রবার, 22 জানুয়ারী 2016 07:38

সংবিধান লঙ্ঘনের জন্য আওয়ামী লীগকে কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে: ফখরুল

সংবিধান লঙ্ঘনের জন্য আওয়ামী লীগকে কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে: ফখরুল

২২ জানুয়ারি (রেডিও তেহরান): বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘পঞ্চদশ সংশোধনী যে বিধানে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল করে দিয়ে দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের ব্যবস্থা করেছিল। সেই সংশোধনীর রায় লেখা হয় তৎকালিন বিচারপতি খায়রুল হক সাহেব অবসর গ্রহণের ১৬ মাস পরে। তাই আজকে কথা উঠেছে কোনো মতে এ রায় সংবিধানের পক্ষে যায় না। সংবিধান লঙ্ঘন করা হয়। তাই সংবিধান পরির্বতন করে তারা রাষ্ট্রবিরোধী সংবিধান বিরোধী কাজ করেছে। সেই জন্য এই সরকারকে অবশ্যই জবাবদিহি করতে হবে এবং ভবিষ্যতে বিচারের কাঠগড়াতেও দাঁড়াতে হবে।’

 

বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে ঠাকুরগাঁও পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলদের সংবর্ধনা ও মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। শহরের বিডি হলে পৌর বিএনপি আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অ্যাডভোকেট আবদুল হালিম।

 

আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রকে একবারে কবরে পাঠিয়ে দিয়েছে এমন মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল তিনি বলেন, ‘পাকিস্তান আমলে কিন্তু তারা (আওয়ামী লীগ) গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম করেছে, তার ১৯৭১ সালে নির্বাচনে জয় লাভ করেছে। ১৯৭১ সালে মুক্তিযোদ্ধ করেছে। সেই আজকে গণতন্ত্রকে হত্যা করছে। সেই কারণ এতই দেওলিয়া হয়ে গেছে নির্যাতন, নিপীড়ন করে বিরোধীদলকে ধ্বংস করে দিয়ে তাদেরকে ক্ষমতায় থাকতে হবে।’

 

পৌর নির্বাচনে ভোট কারচুপির মধ্য দিয়ে বর্তমান সরকারের দেউলিয়াত্ব আবারো উঠে এসেছে মন্তব্য করে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব বলেন, ‘বর্তমান সরকার এতটাই দেউলিয়া হয়ে গেছে যে, নির্যাতন-নিপীড়ন করে ক্ষমতায় টিকে থাকতে হবে। এই যে পৌরসভা নির্বাচন, পত্র-পত্রিকায় আপনারা দেখেছেন, আমাকে বলতে হবে না। দেখেছেন না? কী হয়েছে? নির্বাচন হয়েছে? সব জায়গায় সিল মেরে জোর করে নিয়ে গেছেন।’

 

বাংলাদেশে গণতন্ত্র এখন ধ্বংস হয়ে গেছে উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘এখানে নির্বাচন কমিশন একটা তৈরি করা হয়েছে। নির্বাচন কমিশন নিজেরাই অসহায় হয়ে যায়। বলে, প্রধান বিচারপতিকে আমরা অনুরোধ জানাব, আমাদের এ সমস্যার সমাধান করে দিন। এই রকম একটা নির্বাচন কমিশন।’

 

তিনি বলেন, ‘এই নির্বাচন কমিশনের কাছে আমরা ভালো কিছু আশা করতে পারি না। বিএনপি মনে করে, একটা শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন এবং নির্বাচনকালীন একটা নিরপেক্ষ সরকার প্রয়োজন—এটা আবার প্রমাণিত হলো।‘

 

বিএনপির মহাসচিব আরো বলেন, এই পৌর নির্বাচনের মধ্য দিয়ে এটা আবারো প্রমাণিত হয়েছে, সরকার যদি নিরপেক্ষ না হয়, তাহলে কোনো নির্বাচন সুষ্ঠু হতে পারে না।

 

সরকার অদ্ভূত বিরোধীদল দিয়েছে মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল আরো বলেন, আমরা সংসদে কথা বলতে চাই। নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন চাই, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিয়ে সংসদে সত্যিকারের সরকার ও শক্তিশালী বিরোধীদল দেখতে চাই।

 

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, নব-নির্বাচিত পৌর মেয়র মির্জা ফয়সল আমীন, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক তৈমুর রহমান, সহ-সভাপতি নুর করিম, সাহেদ কামাল চৌধুরী, গোলাম সারোয়ার রঞ্জু চৌধুরী, সুলতানুল ফেরদৌস নুর, যুগ্ম-সম্পাদক ওবায়দুল্লাহ মাসুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক পয়গাম আলী, পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক তারেক আদনান, সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন ও ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম সোহাগ।#

 

রেডিও তেহরান/এআর/২২

 

 

 

মন্তব্য লিখুন


Security code
রিফ্রেস দিন