এই ওয়েবসাইটে আর আপডেট হবে না। আমাদের নতুন সাইট Parstoday Bangla
রবিবার, 08 মে 2016 19:02

হত্যাকারীদের দেশত্যাগ,তাহলে কীসের ঘোড়ার ডিমের নজরদারি: অজয় রায়

হত্যাকারীদের দেশত্যাগ,তাহলে কীসের ঘোড়ার ডিমের নজরদারি: অজয় রায়

২০১৫ সা্লের ফেব্রুয়ারিতে ঢাকায় নিহত লেখক-ব্লগার অভিজিৎ রায়ের খুনিরা আজও গ্রেপ্তার না হওয়ায় পুলিশের প্রতি খেদ প্রকাশ করেছেন তার বাবা অধ্যাপক অজয় রায়। ব্যর্থতার দায় নিয়ে পুলিশ প্রধানের পদত্যাগও দাবি করেছেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী প্রকৌশলী অভিজিৎ রায় ২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যার পর বাংলা একাডেমির বইমেলা থেকে ফেরার পথে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসির সামনে সন্ত্রাসী হামলায় খুন হন। তার স্ত্রী বন্যাও সে সময়ে সন্ত্রাসীদের চাপাতির আঘাতে হাতের আঙুল হারান।

 

গতকাল শনিবার বাংলা একাডেমিতে ড. মো. আনোয়ার হোসেন রচিত ‘অনন্ত আমরা চুপ থাকবো না’ বইয়ের পাঠ উন্মোচন অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে অজয় রায় প্রশ্ন করেন, পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ অভিজিতের খুনিদের শনাক্ত করার কথা দাবি করলেও একজনও গ্রেপ্তার না হওয়ার কী রহস্য?

 

অধ্যাপক অজয় রায় বলেন,“গোয়েন্দা বিভাগ থেকে আমাকে বলা হয়েছে, ‘অভিজিতের তিন জন হত্যাকারী নজরদারিতে রয়েছে’।“তখন গোয়েন্দা কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম, নজরদারি মানে কী? নজরদারি না করে গ্রেপ্তার করছেন না কেন? তারা উত্তর দিতে পারেননি।”

 

ঢাকা মহানগর পুলিশের কমিশনারের একটি বক্তব্যের প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, “এখন বলা হচ্ছে, অভিজিতের হত্যাকারীরা দেশত্যাগ করেছেন। তাহলে আপনারা কীসের ঘোড়ার ডিমের নজরদারি করেছেন?”

 

একের পর এক হত্যাকাণ্ড তার মুখ বন্ধ করে দিয়েছে বলেও মন্তব্য করেন অজয় রায়। তিনি বলেন, “একের পর এক হত্যাকাণ্ডের পর আমি চুপ হয়ে গেছি। এক সময় আমি কথা বলতাম। প্রতিবাদে মুখর থাকতাম। এখন আমি চুপ হয়ে গেছি।”

 

পুলিশের আইজিপির পদত্যাগ দাবি করে তিনি বলেন, “জঙ্গিরা টার্গেট তালিকা দিয়েছে। তারা টার্গেট করে হত্যা করে যাচ্ছে। আপনারা রক্ষা করতে পারছেন না। হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার করতে ব্যর্থ হয়েছে পুলিশ। এই ব্যর্থতার দায় নিয়ে নৈতিক অবস্থান থেকে আইজিপির আজই পদত্যাগ করা উচিত।“

 

এ প্রসঙ্গে রংপুর বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ড: তুহিন ওয়াদুদ রেডিও তেহরানের কাছে দেশের আইন শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ে তার ক্ষেভের কথা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, পরিস্থিতি উন্নয়নে সরকার এখনো এগিয়ে না এলে আরো ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হবে।#

 

আব্দুর রহমান খান/গাজী আবদুর রশীদ/৮

 

মন্তব্য লিখুন


Security code
রিফ্রেস দিন