এই ওয়েবসাইটে আর আপডেট হবে না। আমাদের নতুন সাইট Parstoday Bangla
শনিবার, 16 জানুয়ারী 2016 12:35

‘ভাইয়ের সরকার’ থাকতে রাম মন্দির নিয়ে আন্দোলনের প্রয়োজন নেই

 ‘ভাইয়ের সরকার’ থাকতে রাম মন্দির নিয়ে আন্দোলনের প্রয়োজন নেই

১৬ জানুয়ারি (রেডিও তেহরান): ভারতের অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণ প্রসঙ্গে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ নেতা প্রবীণ তোগাড়িয়া বলেছেন, “দিল্লিতে যখন ‘ভাইয়ের সরকার’ আছে তখন রাম মন্দির নিয়ে আন্দোলনের কি প্রয়োজন? নিজেদের সরকারের বিরুদ্ধে কেউ আন্দোলন করে না।” কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন নরেন্দ্র মোদি সরকারকে ইঙ্গিত করে তোগাড়িয়া এ মন্তব্য করেন।

 

উত্তর প্রদেশের লখনৌতে শুক্রবার এক অনুষ্ঠানে তোগাড়িয়া বলেন, “রাম মন্দির আমাদের জন্য রাজনৈতিক ইস্যু নয়। নির্বাচনের সময় মানুষ দল এবং সরকারের কাজ দেখে সিদ্ধান্ত নেয়। সরদার প্যাটেল সংসদে আইন তৈরি করে সোমনাথ মন্দির নির্মাণ করেছিলেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও প্যাটেলের পথে চলুন। মোদি সরকার সংসদের যৌথ অধিবেশন ডেকে এ সংক্রান্ত আইন আনুক।”

 

তোগাড়িয়া বলেন, “যারা মন্দির নির্মাণের বিরোধিতা করছেন, তাদের বিরোধিতা সত্ত্বেও রাম মন্দির নির্মাণ করা হবেই।”

 

তিনি বলেন, “বিশ্ব হিন্দু পরিষদের পাকিস্তান বা ইংল্যান্ড থেকে ফান্ড আসে না, এজন্য যাতে এ সংক্রান্ত প্রচারণা এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায় তা নিয়ে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।”

 

প্রবীণ তোগাড়িয়া গত ডিসেম্বরে জব্বলপুরে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের জাতীয় কার্যনির্বাহী সমিতির বৈঠকে এক আজব তত্ত্ব খাড়া করে বলেছিলেন, “ভারতে আইএসআইএল-এর প্রভাব বন্ধ করতে এবং দেশের উন্নয়ন করতে হলে অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণ করতে হবে। এতে আইএসআইএল-এর মতাদর্শ দুর্বল হবে এবং দেশের আর্থিক উন্নয়ন হবে।”

 

রাম মন্দির নির্মাণ প্রসঙ্গে অবশ্য পিছিয়ে নেই শাসক দল বিজেপি’র নেতা-মন্ত্রীরাও। গত সপ্তাহেই বিজেপির সিনিয়র নেতা সুব্রমনিয়াম স্বামী দাবি করেছেন, চলতি বছরে রাম মন্দির নির্মাণের কাজ শুরু হবে। স্বামী কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্দেশ্যে চিঠি লিখে সুপ্রিম কোর্টে দৈনিক শুনানি করানোর আবেদন জানিয়েছেন।

 

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এবং বিজেপি নেতা মহেশ শর্মাও কয়েকদিন আগে বলেছেন, রাম মন্দির দেশবাসীর স্বপ্ন এবং প্রত্যেকেই চান দ্রুত রাম মন্দির তৈরি হোক। তার দল এবং সরকারও এ বিষয়ে একমত বলেও জানান মহেশ শর্মা।#

 

রেডিও তেহরান/এমএএইচ/এআর/১৬

 

মন্তব্য লিখুন


Security code
রিফ্রেস দিন