এই ওয়েবসাইটে আর আপডেট হবে না। আমাদের নতুন সাইট Parstoday Bangla
বৃহস্পতিবার, 05 মে 2016 15:09

মোদি সরকারের ব্যর্থতা ঢাকতেই মুসলিম যুবকদের গ্রেফতার: রিহাই মঞ্চ

মোদি সরকারের ব্যর্থতা ঢাকতেই মুসলিম যুবকদের গ্রেফতার: রিহাই মঞ্চ

সন্ত্রাসবাদী তৎপরতার অভিযোগে গোয়েন্দা বিভাগ ও দিল্লি পুলিশের স্পেশাল সেল দিল্লি এবং সাহারানপুর থেকে মুসলিম যুবকদের গ্রেফতার করায় নিন্দা জানিয়েছে ‘রিহাই মঞ্চ’ নামে একটি সংগঠন। মোদি সরকার সবক্ষেত্রে ব্যর্থ হওয়ায় অন্যদিকে দৃষ্টি ঘোরাতে এমন সাম্প্রদায়িক তৎপরতা চালানো হয়েছে বলে রিহাই মঞ্চের দাবি।

 

মঞ্চের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ভারতকে একটি অসহিষ্ণু দেশে পরিণত করে বিশ্বের সামনে দেশের ভাবমূর্তি খারাপ করার জন্য সংঘ পরিবার এবং মোদিকে দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত।

 

বুধবার রিহাই মঞ্চের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে সংগঠনের প্রেসিডেন্ট আইনজীবী মুহাম্মদ শোয়ায়েব গোয়েন্দা বিভাগ এবং দিল্লি পুলিশের স্পেশাল সেলকে সংঘ পরিবারের সম্পুরক সংস্থার মতো কাজ করার অভিযোগ করেছেন।

 

তিনি বলেন, ‘যখনই মোদি এবং সংঘ পরিবারের প্রয়োজন হয় তখন মুসলিম যুবকদের সন্ত্রাসী হিসেবে পেশ করা হয়।’

 

মুহাম্মদ শোয়ায়েব অভিযোগ করে বলেন, ‘(উত্তর প্রদেশের) সাহারানপুরের দেওবন্দ থেকে ৪ এবং দিল্লির গোকুলপুরী এলাকা থেকে ৮ মুসলিম যুবককে গ্রেফতারও সংঘ পরিবারের প্রয়োজনে করা হয়েছে, যাতে আগামী বিধানসভা নির্বাচনে সাম্প্রদায়িক ভিত্তিতে হিন্দুদের ভোট নেয়া যায়।’

 

মুহাম্মদ শোয়ায়েব সর্বোচ্চ আদালতের উদ্দেশ্যে আবেদনে বলেছেন, সন্ত্রাসবাদের নামে গ্রেফতার করা নিরীহ মুসলিম যুবকদের দশকভর জেলে থাকার পরে রেহাই পাওয়ার ঘটনাকে আমলে নিতে এবং সাম্প্রদায়িক ভিত্তিতে মুসলিম হওয়ার জন্য এ ধরণের গ্রেফতারে উচ্চস্তরীয় তদন্ত কমিটি গঠন করে দোষী গোয়েন্দা এবং নিরাপত্তা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেয়া হোক।

 

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে রিহাই মঞ্চের মহাসচিব রাজীব যাদব বলেন, উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব সন্ত্রাসবাদের নামে গ্রেফতার হওয়া নিরীহ মুসলিম যুবকদের মুক্ত করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি তো পালন করেননি, বরং উল্টো এ ধরণের গ্রেফতারের জন্য গোয়েন্দা এজেন্সি এবং দিল্লি পুলিশের বিশেষ সেলকে ফ্রি হ্যান্ড দিয়েছেন। তিনি বলেন, যদি সমাজবাদী পার্টি তাদের ওয়াদা পালন করত তাহলে নিরীহ যুবকদের সাহারানপুর থেকে গ্রেফতার করা হতো না। কিন্ত সমাজবাদী পার্টির সরকার তা করেনি, কারণ তাদের সংঘ পরিবারের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করার ছিল।

 

মঙ্গলবার রাতে গোয়েন্দা এজেন্সি এবং দিল্লি পুলিশের বিশেষ সেল অভিযান চালিয়ে ১৩ জনকে আটক করে। এদের মধ্যে বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। যদিও গ্রেফতার হওয়া যুবকদের পরিবারের দাবি- তাদের সন্তানরা নিরপরাধ। অন্যদিকে, পুলিশ এবং গোয়েন্দাদের দাবি, এদের ওপরে অনেকদিন ধরে নজর রাখা হচ্ছিল। নির্দিষ্ট তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিরণ রিজিজু দিল্লি পুলিশের তৎপরতাকে ‘খুব ভালো পদক্ষেপ’ বলে প্রশংসা করেছেন।#

 

এমএএইচ/এআর/৫

 

মন্তব্য লিখুন


Security code
রিফ্রেস দিন