এই ওয়েবসাইটে আর আপডেট হবে না। আমাদের নতুন সাইট Parstoday Bangla
সমাজ-সংস্কৃতি

মোবাইল ফোন ব্যবহারের সঙ্গে মস্তিষ্ক ক্যান্সারের কোনো সম্পর্ক নেই। অস্ট্রেলিয়ায় গত ২৯ বছরে মোবাইল ফোন ব্যবহারের সংখ্যা বিপুল পরিমাণে বাড়লেও মস্তিষ্ক ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা সে তুলনায় বাড়েনি। অস্ট্রেলিয়ায় গত ৩০ বছর ধরে পরিচালিত স্বাস্থ্য-সমীক্ষায় এ সব তথ্য উঠে এসেছে।

 

এ জরিপে বলা হয়েছে, ১৯৯৩ সালে অস্ট্রেলিয়ার ৯ শতাংশ মানুষ মোবাইল ফোন ব্যবহার করলেও এখন ব্যবহার করে দেশটির ৯০ শতাংশ মানুষ। আর এ সময়ের মধ্যে ২০ থেকে ৮৪ বয়সী পুরুষদের মধ্যে ক্যান্সারের প্রকোপ সামান্য বাড়লেও নারীদের ক্ষেত্রে তা স্থিতিশীল রয়েছে। অবশ্য বয়সিদের মধ্যে ক্যান্সারের প্রকোপ উল্লেখযোগ্যভাবে বেড়েছে। কিন্তু এর সূচনা হয়েছে ১৯৮৭ সালে অর্থাৎ অস্ট্রেলিয়ায় মোবাইল ফোন আসারও পাঁচ বছর আগে থেকে।

 

এ সমীক্ষা চালিয়েছেন, সিডনি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সিমন চ্যাপমেন। তিনি বলেছেন, মোবাইল ফোনের বিকিরণ ডিএনএ’র জন্য ক্ষতিকারক বলে যে প্রচলিত ধারণা রয়েছে কিন্তু এ সমীক্ষায় দেখা গেছে মোবাইল ফোনের সঙ্গে ক্যান্সারের কোনো সম্পর্ক নেই।#

 

মূসা রেজা/৯

 

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, একাধারে পর্যাপ্ত ঘুম না হলে যে কোনো ব্যক্তি কয়েক দিন পর “কার্যত মাতালের” মত আচরণ করবেন। মানুষের জীবনে ঘুমের অনেক বেশি গুরুত্ব রয়েছে কিন্তু অনেক মানুষই এ কথা বুঝতে পারেন না বলেও স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা মনে করেন ।

 

মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ের অলিভিয়া ওয়াচ বলেন, কোনো ব্যক্তি ছয় ঘণ্টা করে ঘুমালেও তার বকেয়া ঘুম থেকে যায়। নিদ্রার ধারা নিয়ে বিশ্বজুড়ে নতুন সমীক্ষা হয়েছে তাতে সহযোগীর হিসেবে কাজ করেছেন ওয়াচ। এ সমীক্ষার প্রেক্ষাপটে নিদ্রা ঘাটতি নিয়ে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন তিনি।

 

জরিপে আরো দেখা গেছে, মধ্যবয়সীদের দিনে সাত থেকে আট ঘণ্টা ঘুমের কথা বলা হলেও তাদেরই সবচেয়ে বেশি নিদ্রা ঘাটতি দেখা দেয়। এ ছাড়া, এ সমীক্ষায় আরো একটি মজার তথ্য পাওয়া গেছে। আর তা হলো, দিনের বেশির ভাগ সময় ঘরের মধ্যে না কাটিয়ে যারা রোদে কাটান, তারা তুলনামূলকভাবে আগে বিছানায় যান এবং বেশি ঘুমান।#

 

মূসা রেজা/৮

 

বৃদ্ধ বয়সে নিয়মিত শরীরচর্চা কেবল দেহকে সুস্থ এবং মন চাঙ্গা রাখে না বরং স্মৃতিকেও শক্তিশালী রাখতে সহায়তা করে। সাম্প্রতিক এ জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে। আর জরিপের ফলাফলটি প্রকাশিত হয়েছে নিউরোইমেজ সাময়িকীর বিশেষ সংখ্যায়।

 

দৈহিকভাবে সুস্থ ব্যক্তিদের মস্তিষ্ক তুলনামূলক আকারে বড় হয়ে বলে নানা প্রমাণ পাওয়া যেতে শুরু করেছে। দেহকে চাঙ্গা রাখা গেলে তাতে মস্তিষ্কের স্মৃতিকেন্দ্রে নতুন নতুন কোষ গজায়। আর তাতের আলজাইমার ব্যাধি ঠেকানোর কাজে সহায়তা হয়।

 

ব্রিটিশ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যা হৃদযন্ত্রের জন্য উপকারী তা মস্তিষ্কের জন্যও শুভে এমন প্রমাণ দিনে দিনে বাড়ছে। তারা বলেছেন, অল্প সময়ের জন্য হাঁটাহাঁটিও দেহ-মন-মস্তিষ্ক ভাল রাখতে সহায়তা করে। নিউরোইমেজের সর্বশেষ সংখ্যায় বলা হয়েছে, সাম্প্রতিক জরিপে দেখা গেছে, শরীরচর্চা বা ব্যায়ামে চাঙ্গা হয়ে ওঠে মস্তিষ্ক।

 

এতে আমেরিকার কেনটুকি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫০ থেকে ৬০ বছর বয়সি ৩০ জন নারী-পুরুষের ওপর চালানো সাম্প্রতিক গবেষণা সমীক্ষা তুলে ধরা হয়েছে। এত দেখা গেছে, ট্রেডমিলে দৌড়ানোর সময় তাদের হৃদপিণ্ড এবং ফুসফুস পরীক্ষা করা হয়। পাশাপাশি করা হয় ব্রেন স্ক্যান। এতে দেখা গেছে, এ ভাবে ব্যায়ামের মধ্য দিয়ে মস্তিষ্কে রক্ত চলাচল বাড়ছে। রক্তই মস্তিষ্ক বয়ে নিচ্ছে অক্সিজেন এবং পুষ্টিকর উপাদান।

 

কাজেই সুস্থ থাকলে চাইলে কেবল সুষম খাদ্য গ্রহণ করলেই হবে না শরীরকে সক্রিয় রাখতে হবে। কেবল মাত্র ব্যায়ামই শরীরকে সক্রিয় রাখতে পারে।#

 

মূসা রেজা/২

 

দেহের প্রতিটি অংশের তাৎক্ষণিক পরিস্থিতি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। সামান্য পানির ছিটা গায়ে লাগার সঙ্গে সঙ্গে আমরা সতর্ক হয়ে যাই। এ রকম আরো অনেক কিছু আছে। আর এসবই স্নায়ুতন্ত্র বা নার্ভাস সিস্টেমের কারণে।

 

দেহের সব পরিস্থিতি বা সুবিধা-অসুবিধা ও অনুভূতি মস্তিস্কে পৌঁছে দেয় সেনসরি নার্ভ বা সংজ্ঞাবহ স্নায়ু। আর সেই নির্দেশ অনুযায়ীই আমাদের দেহ তাৎক্ষণিকভাবে কাজ করে। দেহের অন্যান্য অংশের মতো স্নায়ুতন্ত্রেও রোগ হতে পারে। আর স্নায়ুতন্ত্রের রোগ নিয়ে রেডিও তেহরানে আলোচনা করেছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজের নিউরো সার্জন ডা. মো. শামীমুল আলম সিদ্দিকী (শামীম)। বাংলাদেশের সবচেয়ে কমবয়সী এই নিউরো সার্জনের আলোচনার দ্বিতীয় পর্ব শুনতে অডিও ফাইলে ক্লিক করুন।# (এআর)

 

 

২ মার্চ (রেডিও তেহরান): দেহের প্রতিটি অংশের তাৎক্ষণিক পরিস্থিতি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। সামান্য পানির ছিটা গায়ে লাগার সঙ্গে সঙ্গে আমরা সতর্ক হয়ে যাই। এ রকম আরো অনেক কিছু আছে। আর এসবই স্নায়ুতন্ত্র বা নার্ভাস সিস্টেমের কারণে।