এই ওয়েবসাইটে আর আপডেট হবে না। আমাদের নতুন সাইট Parstoday Bangla
সমাজ-সংস্কৃতি

২৭ এপ্রিল (রেডিও তেহরান): ইরানি গবেষকরা হলুদ থেকে ক্যান্সারের ন্যানো ওষুধ তৈরি করেছেন। ক্লিনিক্যাল পরীক্ষায় ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে এ ওষুধের কার্যকারিতা নিশ্চিত করা গেছে। তেহরান বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা বিজ্ঞান বিভাগের ক্যান্সার গবেষণা কেন্দ্র এ ওষুধ তৈরি করেছে।

 

ইরানি গবেষকদের তৈরি পলিমারভিত্তিক ন্যানো বাহকের মাধ্যমে সুনির্দিষ্ট কোষকলায় পৌঁছে দেয়া হবে ক্যান্সারবিরোধী ওষুধ কারকিউমিন। হলুদের এ উপাদানের ক্যান্সার আক্রান্ত কোষকলা ধ্বংস এবং ক্যান্সার প্রতিহত করার ক্ষমতা আছে। এ ছাড়াও, জারণ ও প্রদাহ প্রতিহত করার ক্ষমতাও আছে হলুদের এ উপাদানের।  

 

বিষাক্ত প্রভাবক ব্যবহার না করে এই ন্যানো বাহক তৈরি করা হয়েছে উল্লেখ করে ইরানের ন্যানোটেকনোলজি ইনিশিয়েটিভ কাউন্সিলের ডা. আলীরেজা মোহাম্মদ আলীজাদেহ জানান, পরীক্ষা চলাকালে অনেক রোগীকে এ ওষুধ দেয়ার পর এর কার্যকারিতা প্রমাণিত হয়েছে।

 

প্রথম পর্যায়ের ক্লিনিক্যাল পরীক্ষায় অতি উচ্চমাত্রায় প্রয়োগ করা সত্ত্বেও এ ওষুধের কোনো বিষক্রিয়া রোগীর দেহে দেখা যায় নি। ওষুধরোধী স্তন ও পরিপাক নালীর ক্যান্সার আক্রান্ত রোগীদের ওপর চালানো দ্বিতীয় পর্যায়ের ক্লিনিক্যাল পরীক্ষাও প্রায় শেষ হয়ে এসেছে।

 

ন্যানো-কারকিউমিন তৈরির মৌলিক সব উপাদানই দেশেই পাওয়া যায় এ কথা উল্লেখ করে ডা. আলীরেজা বলেন, ক্যান্সার বিধ্বংসী এ ওষুধের গণ-উৎপাদন ইরানেই সম্ভব।#

 

রেডিও তেহরান/সমর/এআর/২৭

১৫ এপ্রিল (রেডিও তেহরান): বাংলাদেশে সাম্প্রতিক কালের নতুন এক আবিষ্কারের নাম 'অটিজম'। বর্তমানে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্ব বিষয়টি নিয়ে বেশ সচেতন। সম্প্রতি দু'টি আন্তর্জাতিক সম্মেলন এর প্রমাণ। প্রথমটি (International Conference on Autism Disorders and Developmental Disabilities in Bangladesh and South Asia.25-26,July 2011) ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে বিশ্বের ১১টি  দেশের প্রতিনিধি ও বিশেষজ্ঞরা উপস্থিত ছিলেন। ভারতের কংগ্রেস দলের সভানেত্রী শ্রীমতি সোনিয়া গান্ধী এ সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। সম্মেলনে প্রায় ২০০ পিতা-মাতা ছিলেন যাদের সন্তানেরা নানা ধরনের অক্ষমতায় (Disorder) ভুগছে। সম্মেলনে অটিজমের কল্যাণে ঢাকা ঘোষণা ২০১১ গৃহীত হয়, যা জাতিসংঘের ৬৭তম অধিবেশনের ২৭৩তম এজেন্ডার মাধ্যমে অনুমোদিত হয়। যেখানে UNO সদস্যভুক্ত ১৯৩টি দেশ ভোট প্রদান করে। দ্বিতীয়টি ২০১৩ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি (South Asian Autisim Network-SAAN) দিল্লিতে অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেও দিল্লি ঘোষণা ২০১৩ গৃহীত হয়।২

এছাড়া, ২০১৩ সালের ৩০ মে তারিখে WHO-এর নির্বাহী পরিষদে অটিস্টিক শিশুর জন্য "সর্বাত্মক ও সমন্বিত উদ্যোগ" নামে একটি প্রস্তাবের অনুমোদন দেয়া হয়। যেখানে যুক্তরাষ্ট্র, ভারত ও সৌদি আরবসহ অন্তত ৫০টি দেশ সমর্থন দিয়েছে।৩

৯ এপ্রিল (রেডিও তেহরান):   এবোলা রোগ মাত্র ১১ মিনিটের মধ্যে নির্ণয়ের পদ্ধতি বের করেছে জাপানি একটি গবেষক দল। প্রচলিত পদ্ধতিতে এ রোগ ধরতে ৯০ মিনিট লাগে।

 

নাগাসাকি বিশ্ববিদ্যালয় ইন্সটিটিউটের ট্রপিক্যাল মেডিসিন বিভাগের গবেষক দলের এ আবিষ্কার প্রাণঘাতী রোগের চিকিৎসা দ্রুততর করতে সহায়তা করবে বলে জানিয়েছেন অধ্যাপক জিরো ইয়াসুদা।

 

গিনিতে গত মাসে এ পদ্ধতির পরীক্ষা চালিয়েছে। একশ’ ব্যক্তি ওপর চালানো পরীক্ষায় দেখা গেছে অপ্রত্যাশিত কম সময়ের মধ্যেই এবোলা রোগের উপস্থিত শনাক্ত করতে পারছেন গবেষকরা। এ পরীক্ষা চলাকালে একশ’ ব্যক্তির মধ্যে ৪৭ জনের দেহে এবোলা উপস্থিতি ধরা পড়েছে।

 

রক্ত বা দেহ নিঃসৃত অন্য কোনো তরল পদার্থে এবোলা ভাইরাসের সঙ্গে জড়িত জিনের উপস্থিতি থাকলে তা তুলে ধরা হয় এ পরীক্ষায় । গবেষক দলটি একে “প্রাইমার” হিসেবে অভিহিত করেছেন।

নাগাসাকি বিশ্ববিদ্যালয় ইন্সটিটিউটের ট্রপিক্যাল মেডিসিন বিভাগ ও তাদের সহযোগী তোশিবাকে নতুন পরীক্ষা চালানোর যন্ত্রপাতি সরবরাহ করার আহ্বান জানিয়েছে গিনি সরকার।

 

রক্ত বা দেহ নিঃসৃত অন্য কোনো তরল পদার্থের সংস্পর্শের মাধ্যমে এবোলা’র বিস্তার ঘটে। ২০১৩ সালের ডিসেম্বরে এ রোগ দেখা দেয়ার পর পশ্চিম আফ্রিকায় ১০ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছে।#

 

রেডিও তেহরান/সমর/৯

১৫ মার্চ (রেডিও তেহরান):  ইরান এই প্রথমবারের মতো রাশিয়ায় ক্যান্সার চিকিৎসায় ব্যবহৃত ওষুধ রফতানি করবে। চলতি বছরের চতুর্থ ত্রৈমাসিকে উচ্চ মূল্যমানের এসব ওষুধ রফতানি করা হবে। ইরানের শীর্ষ স্থানীয় ওষুধ নির্মাণকারী কোম্পানি তৌফিক দারু’র বাণিজ্যিক বিভাগের প্রধান রুহল্লাহ হায়দারি এ কথা জানিয়েছেন।

 

তিনি বলেন, রাশিয়ায় যে সব ওষুধ রফতানির পরিকল্পনা করা হয়েছে তার মধ্যে মাল্টিপল স্কেলেরোসিস বা এমএস এবং নানা ধরণের ক্যান্সার চিকিৎসায় ব্যবহৃত ওষুধ রয়েছে। লাতিন আমেরিকা, তুরস্ক ও পাকিস্তানের বাজারেও এ জাতীয় ওষুধ রফতানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইরান।

 

বর্তমানে ইরান বছরে ২২ কোটি ডলারের সমপরিমাণ ওষুধ রফতানি করছে। তবে আমদানিকৃত ওষুধের তুলনায় এ অর্থের পরিমাণ খুবই কম।

অবশ্য, ক্যান্সার চিকিৎসায় ব্যবহৃত ওষুধের কাঁচামালসহ অন্যান্য  কাঁচামাল তৈরিতে গত কয়েক বছর ধরে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি লাভ করেছে ইরান।  এ ছাড়াও, ওষুধখাতে আমদানি নির্ভরতা কমিয়ে আনার ব্যাপক পরিকল্পনাও গ্রহণ করেছে ইরান।#

 

রেডিও তেহরান/সমর/১৫

 

জাপানিজ এনকেফেলাইটিস নামের প্রাণঘাতী রোগটির কথা অনেকেই শুনেছেন। বাংলাদেশেও এ রোগের প্রার্দুভাব দেখা দিয়েছে সে কথাও সংবাদ মাধ্যমের কল্যাণে অনেকেরই জানা আছে। 

 

বাংলাদেশে  জাপানিজ এনকেফেলাইটিস রোগের প্রকোপ ও তার প্রতিকার নিয়ে আজকের আসরে আলাপ হবে। আর এ বিষয়ে আলাপ করবেন  বাংলাদেশ রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউট বা আইইডিসিআর-এর পরিচালক  অধ্যাপক মাহমুদুর রহমান পিএইচডি।