এই ওয়েবসাইটে আর আপডেট হবে না। আমাদের নতুন সাইট Parstoday Bangla
শনিবার, 30 এপ্রিল 2016 00:42

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে গুজরাটের জয়, ধোনির দলের ৫ম হার

ম্যাচ সেরার পুরস্কার নিচ্ছেন ডোয়াইন স্মিথ ম্যাচ সেরার পুরস্কার নিচ্ছেন ডোয়াইন স্মিথ

মহেন্দ্র সিং ধোনির রাইজিং পুনে সুপারজায়ান্টসের বিপক্ষে ৩ উইকেটের নাটকীয় জয় পেয়েছে গুজরাট লায়নস। শেষ বলে ১ রান দরকার- এরকম একটি সমীকরণের সামনে দাঁড়িয়ে জয় নিশ্চিত করে সুরেশ রায়নার দল। চলমান আইপিএলের ৭ ম্যাচে ৬টি জয় নিয়ে শীর্ষস্থান অক্ষুণ্ন রাখল গুজরাট। অন্যদিকে, সমানসংখ্যক ম্যাচে মাত্র দুটি জয় নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে ধোনির দল।

 

মহারাষ্ট্র ক্রিকেট এসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে টসে জিতে প্রথমে বল করার সিদ্ধান্ত নেন গুজরাট লায়ন্সের অধিনায়ক সুরেশ রায়না। নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে অজিঙ্কা রাহানে এবং ডোয়াইন স্মিথের দৃঢ় ব্যাটিংয়ে ৩ উইকেটে ১৯৫ রানে থামে পুনের ইনিংস। জবাবে, স্টিভেন স্মিথ-ম্যাককালাম জুটির দৃঢ়তাপূর্ণ ব্যাটিংয়ে ভর করে ৭ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে গুজরাট।

 

১৯৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দুরন্ত সূচনা করেন গুজরাটের দুই ওপেনার ডোয়াইন স্মিথ ও ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। মাত্র ২৫ বলেই তারা অর্ধশতক পূর্ণ করেন। পাওয়ার প্লে’র প্রথম ছয় ওভারে থেকে ৭২ রান আসে তাদের ব্যাট থেকে। ৪৯ বলেই উদ্বোধনী জুটিতে তারা তুলে নেন ৯৩ রান। ইনিংসের নবম ওভারে ভাটিয়ার বলে মরকেলের তালুবন্দি হন ম্যাককালাম। কিউই এই তারকা ২২ বলে ৫টি চার আর দুটি ছক্কায় করেন ৪৩ রান।

 

ব্যাটে ঝড় তোলা আরেক ওপেনার ডোয়াইন স্মিথ খেলেন ৬৩ রানের ইনিংস। ৩৭ বল মোকাবেলা করে এই ক্যারিবীয়ান ৯টি বাউন্ডারি আর একটি ওভার বাউন্ডারি হাঁকান। পেরেরার বলে স্মিথ বোল্ড হয়ে যাওয়ার পরই রানের চাকায় ফাটল ধরে গুজরাটের। কিন্তু দলের হাল ধরেন কার্তিক। তিনি ২০ বলে ৩৩ রান করে দলের রানের চাকা পুনরায় সচল করেন। কিন্তু কার্তিকের উইকেটের পতন হলে আবারও খেলায় ফিরে আসে পুনে।

 

শেষ দুই ওভারে গুজরাটের দরকার হয় ২০ রান। অশোক ডিন্ডার ১৯তম ওভারে ব্যক্তিগত ৭ রান করে বিদায় নেন ব্রাভো। রানের খাতা খোলার আগেই রান আউট হন জাদেজা। শেষ ওভারে আরও ৯ রানের প্রয়োজন হয় গুজরাটের। থিসারা পেরেরা করা ওই ওভারের প্রথম বলে চার রান আসলে খেলার মোড় ঘুরে যায় আবার। তৃতীয় বলে বোল্ড হন ২৮ বলে ৩৪ রান করা সুরেশ রায়না। পরের বলেই রান আউট হন ঈশান কিষান। এ পর্যায়ে খেলা আবার জমে ওঠে। তবে, জেমস ফকনার শেষ বলে ১ রান নিয়ে গুজরাটের জয় নিশ্চিত করে।

 

পুনের হয়ে দুটি করে উইকেট নেন ডিন্ডা ও পেরেরা। একটি উইকেট পান রজত ভাটিয়া।

 

এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে তৃতীয় ওভারেই ওপেনার তিওয়ারিকে হারায় পুনে। এরপর অজিঙ্কা রাহানে এবং অস্ট্রেলিয়ান তারকা স্টিভেন স্মিথ মাত্র ৬৭ বলে ১১১ রানের পার্টনারশিপ গড়ে তোলেন। রাহানে ৪৫ বলে ৫৩ রান করে রান আউটের শিকার হন। এরপর অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনিকে সঙ্গে নিয়ে তৃতীয় উইকেটে ৬৪ রানের পার্টনারশিপ গড়ে তোলেন তিনি। ইনিংসের শেষ ওভারে মাত্র ৫৩ বলে নিজের শতক পূরণ করেন স্মিথ। শেষ পর্যন্ত ১০১ রান করে ব্রাভোর বলে আউট হন তিনি। তার ৫৪ বলের ঝোড়ো ইনিংসে ছিল ৮টি চার আর ৫টি ছক্কার মার। পুনের দলপতি ধোনিও ব্যাটে ঝড় তোলেন। ১৮ বলে দুটি করে চার ও ছক্কায় ৩০ রান করে অপরাজিত থাকেন ধোনি।

 

গুজরাটের একমাত্র উইকেটটি পান ৪ ওভারে ৪০ রান খরচ করা ব্রাভো। বাকি দুই ব্যাটসম্যানই রান আউট হন।

 

ম্যাচ শেষে গুজরাটের অধিনায়ক সুরেশ রায়না বলেন, “জয়টা এত সহজ ছিল না, অনেক কাছাকাছি একটি ম্যাচ ছিল। যে কেউই এই ম্যাচ জিততে পারত। ম্যাককালাম এবং স্মিথ অসাধারণ ব্যাটিং করেছেন।”

 

শ্বাসরুদ্ধকর এ খেলায় ৬৩ করে দলের জয়ে প্রধান ভূমিকা রাখায় প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ পুরস্কার পেয়েছেন গুজরাটের তারকা ব্যাটসম্যান ডোয়াইন স্মিথ।#

 

আশরাফুর রহমান/৩০

 

মন্তব্য লিখুন


Security code
রিফ্রেস দিন