এই ওয়েবসাইটে আর আপডেট হবে না। আমাদের নতুন সাইট Parstoday Bangla
সোমবার, 09 মে 2016 00:36

সাকিব-ইউসুফের অর্ধশতকেও কোলকাতার হার, পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে গুজরাট

দিনেশ কার্তিক, সাকিব আল হাসান ও ইউসুফ পাঠান দিনেশ কার্তিক, সাকিব আল হাসান ও ইউসুফ পাঠান

আইপিএলের ৩৮তম ম্যাচে সুরেশ রায়নার গুজরাট লায়ন্সের কাছে ৫ উইকেটে হেরেছে কোলকাতা নাইট রাইডার্স (কেকেআর)। এর ফলে আইপিএলের পয়েন্ট টেবিলের তিন নম্বরে নেমে গেছে গৌতম গম্ভীরের দল। ১১ ম্যাচে ৭ জয় নিয়ে সর্বোচ্চ ১৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে উঠল গুজরাট। ৯ ম্যাচে ৬ জয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার দুইয়ে মুস্তাফিজদের হায়দ্রাবাদ।

 

কোলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ২৪ রানেই টপঅর্ডারের চার ব্যাটসম্যানকে হারায় কোলকাতা। তারপরও সাকিব আল হাসান ও ইউসুফ পাঠানের দূরন্ত ব্যাটিংয়ে ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভারে চার উইকেট হারিয়ে ১৫৮ রান তোলে কোলকাতা। জবাবে, ১৮ ওভার ব্যাট করে ৫ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় গুজরাট।

 

প্রথমে ব্যাট করতে এসে কেকেআর’র দুই ওপেনার গৌতম গম্ভীর ও রবিন উথাপ্পা কেউ ক্রিজে টিকে থাকতে পারেননি। রবিন উথাপ্পা ১৪, দলপতি গৌতম গম্ভীর ৫ করে আউট হন। কোনো রান করে ফিরে যান তিন নম্বরে নামা মনীশ পাণ্ডে। ৪ রান করে ফেরেন সূর্যকুমার। দলীয় ২৪ রানে চার উইকেট ভয়াবহ ব্যাটিং বিপর্যয়ের মধ্যে শক্তভাবে কোলকাতার হাল ধরেছিলেন সাকিব আল হাসান ও ইউসুফ পাঠান। পঞ্চম উইকেটে তারা গড়েন ১৩৪ রানের হার না মানা জুটি।

 

শুরুটা ধীরগতিতে করলেও শেষপর্যায়ে গুজরাটের বোলারদের ভালোই ভুগিয়েছেন সাকিব আর পাঠান। সাকিবের ৬৬ রানের ইনিংসে ছিল চারটি চার ও চারটি ছয়ের মার। কোলকাতার পক্ষে এটা ছিল সর্বোচ্চ রানের ইনিংস। পাঠানের ৪১ বলের ৬৩ রানের ইনিংসে ছিল ৭টি চার আর একটি ছক্কা।

 

গুজরাটের হয়ে সবচেয়ে বেশী উইকেট শিকার করেছেন ভারতের ডানহাতি পেসার প্রবীণ কুমার। চার ওভারে ১৯ রান দিয়ে তিনি ২টি উইকেট শিকার করেছেন। এছাড়া, ধাওয়াল কুলকারনি ও ডোয়াইন স্মিথ একটি করে উইকেট নেন।

 

১৫৯ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে গুজরাটের ওপেনার ডোয়াইন স্মিথ ২৭ ও আরেক ওপেনার ব্রেন্ডন ম্যাককালাম ২৯ রান করেন। স্মিথকে বোল্ড করেন সাকিব। রায়নার ব্যাট থেকে আসে ১৪ রান। দিনেশ কার্তিক ২৯ বলে করেন সর্বোচ্চ ৫১ রান। আর অ্যারন ফিঞ্চ করেন ১০ বলে ২৯ রান। ১৮ ওভারে ১৬৪ রান তুলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে গুজরাট।

 

কোলকাতার পক্ষে সাকিব, আন্দ্রে রাসেল, ব্রাড হগ ও পিযুষ চাওলা প্রত্যেকে একটি করে উইকেট লাভ করেন।

 

ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে কোলকাতার অধিনায়ক গৌতম গম্ভীর বলেন, “সাকিব ও ইউসুফ অসাধারণ ব্যাটিং করেছে, তারা এমন সময় দলের হাল ধরেছিল যখন দল একদম বিপর্যস্ত ছিল। আমি মনে করি সাকিব আর ইউসুফ যে রান করে দিয়ে এসেছিলেন তা যথেষ্ট ছিল। কিন্তু আমাদের আরও ভালো ব্যাটিং করা উচিত ছিল, আমাদের টপ অর্ডার এখানে ব্যর্থ।”

 

তিনি আরও বলেন, “টি-টোয়েন্টি ম্যাচ জিততে হলে শুরুতেই উইকেট তুলে নিতে হয় তাহলে রানের চাকায় লাগাম ধরা যায়, তারা ঠিক সেই কাজটাই করেছে। আমরা পেসার দিয়ে বোলিং শুরু করেছিলাম কিন্তু স্মিথ এবং ম্যাককালাম নিজেদের আপন ছন্দে খেলছিল, পাওয়ার প্লে ওভারেই তার অনেক এগিয়ে গিয়েছিল। আমরা স্পিনার দিয়েও চেষ্টা করেছিলাম কিন্তু প্রকৃতপক্ষে কোনো লাভ হয়নি।”

 

আশরাফুর রহমান/৯

মন্তব্য লিখুন


Security code
রিফ্রেস দিন