এই ওয়েবসাইটে আর আপডেট হবে না। আমাদের নতুন সাইট Parstoday Bangla
বৃহস্পতিবার, 03 ডিসেম্বর 2015 10:34

‘বিদ্যুৎ-চৌম্বকীয় অস্ত্রে মারা যেতে পারে আমেরিকার ৯০ শতাংশ মানুষ’

 ‘বিদ্যুৎ-চৌম্বকীয় অস্ত্রে মারা যেতে পারে আমেরিকার ৯০ শতাংশ মানুষ’

৩ ডিসেম্বর (রেডিও তেহরান): আমেরিকা উন্নত প্রযুক্তির বিদ্যুৎ-চৌম্বকীয় অস্ত্র নির্মাণের দৌড়ে পিছিয়ে গেছে। এ জাতীয় অস্ত্র দিয়ে দেশটির ৯০ শতাংশ মানুষ ধ্বংস করে দেয়া সম্ভব বলে মার্কিন সেন্টার ফর স্ট্রাটেজিক অ্যান্ড বাজেটারি অ্যাসেসমেন্টের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে।

 

এতে আরো বলা হয়েছে,আধুনিক যুদ্ধে একে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অস্ত্র হিসেবে গণ্য করা হচ্ছে। ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে,এ প্রযুক্তি স্মার্টফোনের মতই বিপ্লব সৃষ্টি করবে। বর্তমানে ইন্টারনেট এবং স্মার্টফোন বিশ্বের পুরোনো ধ্যান-ধারণা বদলে দিয়েছে। উন্নত প্রযুক্তির বিদ্যুৎ-চৌম্বকীয় অস্ত্র ঠিক একই ভাবে ভবিষ্যতের যুদ্ধক্ষেত্রের চেহারা বদলে দেবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

 

ক্ষেপণাস্ত্রে বসানো থাকে ইএমপি বা বিদ্যুৎ-চৌম্বকীয় স্পন্দন কামান। এ থেকে লক্ষ্যবস্তুর ওপর হামলা করে উচ্চ শক্তিধর বিদ্যুৎ-চৌম্বকীয় তরঙ্গ। ফলে বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতির ভোল্টেজ প্রচণ্ড বেড়ে যায় এবং তা একেবারে অকেজো হয়ে পড়ে।

 

হামলা এতো দ্রুত হয় যে, ভোল্টেজ বেড়ে যাওয়া ঠেকানোর যে ব্যবস্থা থাকে তা কার্যকর হওয়ার বা করার সময়ই পাওয়া যায় না। এতে শত্রুর কমান্ড, কন্ট্রোল, কম্যুনিকেশন এবং কম্পিউটিং ব্যবস্থায় ধস নামে । এ ভাবে পুরোপুরি অকেজো হয় যায় শত্রুর গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ ব্যবস্থা এবং নজরদারির সক্ষমতা।


এ হামলার দুই বছরের মধ্যে আমেরিকার ৯০ শতাংশ মানুষ মারা পড়তে পারে। প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ এবং মার্কিন প্রেসিডেন্ট প্রার্থী জন ম্যাকফি সম্প্রতি এক ব্লগে এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন। অবশ্য দু’বছরে ২৭ কোটি মানুষ কীভাবে মারা পড়বে সে বিষয়ে বিস্তারিত ব্যাখ্যা এতে দেয়া হয় নি।



চীন ও রাশিয়া এ প্রযুক্তিতে এগিয়ে আছে বলে প্রতিবেদনে ধারণা ব্যক্ত করা হয়েছে।#

রেডিও তেহরান/সমর/৩

মন্তব্য লিখুন


Security code
রিফ্রেস দিন