এই ওয়েবসাইটে আর আপডেট হবে না। আমাদের নতুন সাইট Parstoday Bangla
বৃহস্পতিবার, 26 মার্চ 2015 13:31

পশ্চিমবঙ্গে ডাকাতি ও নান ধর্ষণ: গ্রেফতার ১, তদন্ত চালাবে না সিবিআই

পশ্চিমবঙ্গে ডাকাতি ও নান ধর্ষণ: গ্রেফতার ১, তদন্ত চালাবে না সিবিআই

২৬ মার্চ (রেডিও তেহরান): পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার রানাঘাটের একটি কনভেন্ট স্কুলে ডাকাতি ও বৃদ্ধা নানকে গণধর্ষণের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে এক সন্দেহভাজনকে গ্রেফতার করল রাজ্য গোয়েন্দা সংস্থা সিআইডি। সেলিম শেখ নামে ওই সন্দেহভাজনকে গতকাল সন্ধ্যায় মুম্বাই থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার মুখের সঙ্গে সিসিটিভি ফুটেজে পাওয়া দুষ্কৃতীদের মুখের ছবির মিল রয়েছে বলে পুলিশ দাবি করেছে।

 

আজ (বৃহস্পতিবার) ধৃত ব্যক্তিকে নিয়ে রানাঘাটের ঘটনাস্থলে গেছে তদন্তকারী কর্মকর্তারা। সমস্ত ঘটনার মূলে মিলন নামে এক দুষ্কৃতী দলের হোতা জড়িত রয়েছে বলে তদন্তকারী কর্মকর্তারা জানতে পেরেছেন। পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগণা জেলার হাবড়ার এক ব্যক্তির বাড়িতে ওই দুষ্কৃতী দলটি আশ্রয় নিয়েছিল। আশ্রয়দাতা ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে রাজ্য সিআইডি সদর দফতর ভবানীভবনে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছেন গোয়েন্দারা। তার পরিচয় অবশ্য এখনো জানা যায় নি।

 

অন্যদিকে, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই ঘটনার তদন্তভার কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআইকে দিয়ে করানোর ঘোষণা দিলেও তারা এর তদন্ত করছে না।

 

রাজ্য সরকারের করা আবেদনে পদ্ধতিগত ত্রুটির জন্য তদন্ত চালানো সম্ভব নয় বলে প্রশাসনিক সূত্রে খবর। এক্ষেত্রে নতুনভাবে রাজ্যের পক্ষ থেকে পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

 

সম্প্রতি গভীর রাতে রানাঘাটের ‘কনভেন্ট অফ জেসাস অ্যান্ড মেরি’ স্কুলে ডাকাতি এবং ৭১ বছর বয়সী বৃদ্ধা নানকে গণধর্ষণের অভিযোগে দেশজুড়ে ব্যাপক চাঞ্চল্য এবং উদ্বেগের সৃষ্টি হয়েছে। এমনকি আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও এই বিষয়টি ছড়িয়ে পড়েছে। 

বৃদ্ধা নানকে গণধর্ষণের ঘটনায় আগেই সিআইডি তদন্ত শুরু হলেও গত ১৮ মার্চ কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা সিবিআইকে দিয়ে তদন্ত করার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

 

তিনি টুইটার ও ফেসবুকে দেয়া স্ট্যাটাসে এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে বলেন, ‘ঘটনার গুরুত্ব ও সংবেদনশীলতার কথা মাথায় রেখে এবং যেহেতু সীমান্ত এলাকার খুব কাছেই এই ঘটনা ঘটেছে, তাই তদন্তের ভার সিবিআইকে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এই ঘটনাকে 'অত্যন্ত মারাত্মক' বলে  উল্লেখ করে পুলিশ অপরাধীদের গ্রেফতারের চেষ্টা করছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। #

 

রেডিও তেহরান/এমএএইচ/এআর/২৬

 

 

 

154

মন্তব্য লিখুন


Security code
রিফ্রেস দিন