এই ওয়েবসাইটে আর আপডেট হবে না। আমাদের নতুন সাইট Parstoday Bangla
শনিবার, 30 এপ্রিল 2016 19:01

যন্তর মন্তরে ব্লাসফেমি আইনের দাবিতে আশিকে রাসুল (সা.) ফ্রন্ট’র ধর্না

যন্তর মন্তরে ব্লাসফেমি আইনের দাবিতে আশিকে রাসুল (সা.) ফ্রন্ট’র ধর্না

ভারতের দিল্লির যন্তর মন্তরে আশিকে রাসুল (সা.) ফ্রন্ট নামে এক সংগঠনের অবস্থান ধর্মঘট হয়েছে। আজ (শনিবার) প্রচণ্ড দাবদাহকে উপেক্ষা করে কয়েক হাজার মানুষ এই অবস্থান ধর্মঘটে শামিল হন। রাসুল (সা.)’র অবমাননাকারীদের মৃত্যুদণ্ড দেয়ার জন্য সংসদে আইন তৈরি করতে হবে বলে সংগঠনটি দাবি জানায়।

 

আজ ৪২ ডিগ্রি তাপমাত্রা ‌উপেক্ষা করেও আশিকে রাসুল ফ্রন্টের ব্যানারে দিল্লি ছাড়াও গুরগাঁও, ফরিদাবাদ, গাজিয়াবাদ, মুরাদাবাদ, সম্ভল, বেরেলি, মীরাট এবং আলোয়ার থেকেও মানুষজন সমবেত হয়।

 

আশিকে রাসুল (সা.) ফ্রন্ট’র প্রেসিডেন্ট হাজী শাহ মুহাম্মদ কাদরি যন্তর মন্তরে দেয়া বক্তব্যে বলেন, ‘ভারতীয় দন্ডবিধি অনুযায়ী ব্লাসফেমি আইনের কোনো বিধান না থাকায় কিছু অসামাজিক অংশ প্রিয় নবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)’র বিরুদ্ধে অসম্মানজনক কথা লিখছে, বলছে বা প্রচার করছে। এটা মুসলিমদের জন্য অত্যন্ত গুরুতর এবং লজ্জাজনক ব্যাপার।’

 

হাজী শাহ মুহাম্মদ অবশ্য অন্যান্য ধর্মের ধর্মগুরুদের প্রতি বিদ্বেষ সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধেও শাস্তির দাবি তুলেছেন। তিনি বলেন, ‘এজন্য ফ্রন্ট চায় সংসদে ব্লাসফেমি আইন পাস করে পয়গম্বর এবং ধর্মগুরুদের প্রতি বিদ্বেষ সৃষ্টিকারীদের আইনের আওতায় আনতে। ব্লাসফেমি আইনে ফাঁসির সাজা পর্যন্ত ব্যবস্থা থাকা উচিত যাতে কোনো সম্প্রদায়ের অনুভুতি নিয়ে কেউ খেলা করার চেষ্টা না করতে পারে।’

 

তিনি পরামর্শ দিয়ে বলেন, ‘১৫৩ (এ) ধারা বা হেট স্পিচ আইনকে পরিমিত, পরিবর্তিত এবং উন্নিতকরণ করে ব্লাসফেমি আইনে রূপ দেয়া যেতে পারে।’ তিনি বলেন, ‘মুসলিমরা স্রেফ লবন দিয়ে রুটি খেতেও প্রস্তুত। কিন্তু নবীজির শানে যারা ঔদ্ধত্য দেখাবে তাদের কঠোর শাস্তি হোক।’

 

আশিকে রাসুল ফ্রন্টের মহাসচিব সৈয়দ জুলফিকার আলী ওরফে আলম বলেন, ‘কিছুদিন আগে কমলেশ তিওয়ারি নামে এক ব্যক্তি আমাদের প্রিয় নবী (সা.)’র বিরুদ্ধে বাজে কথা বলেছিল। এর বিরুদ্ধে সারা দেশ জুড়ে যে প্রতিবাদ আন্দোলন হয়েছিল তা দেখে সরকারের বোঝা উচিত মুসলিমদের এটা অভিপ্রায় যে তারা নিজেদের নবী (সা.)-এর প্রতি কোনো অসম্মান সহ্য করতে পারেবে না। আমরা দাবি করছি যে, নবীজির মর্যাদা অসম্মানকারীদের কঠোর শাস্তি দিতে হবে।’#

 

এমএএইচ/জিএআর/৩০

 

মন্তব্য লিখুন


Security code
রিফ্রেস দিন