এই ওয়েবসাইটে আর আপডেট হবে না। আমাদের নতুন সাইট Parstoday Bangla
সোমবার, 02 মে 2016 19:52

বাংলাদেশে উগ্রপন্থি হামলা বৃদ্ধি পেয়েছে- টাইম: মিশ্র প্রতিক্রিয়া

আসাদুজ্জামান খান, মুফতি ফয়জুল্লাহ ও ড. রেজোয়ান সিদ্দিকী আসাদুজ্জামান খান, মুফতি ফয়জুল্লাহ ও ড. রেজোয়ান সিদ্দিকী

মার্কিন সাময়িকী টাইম ম্যাগাজিনে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে মন্তব্য করা হয়েছে, যে, গত বছর থেকে বাংলাদেশে জাতিগত উগ্রপন্থি হামলা বৃদ্ধি পেয়েছে। এ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে এক মাসে ৫টি একই ধরনের হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। এর সর্বশেষ শিকার টাঙ্গাইলের দর্জি নিখিল চন্দ্র জোয়ারদার। এ হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করছে ইসলামী উগ্রপন্থিরা। কিন্তু বরাবরের মতোই সরকার এমন স্বীকারোক্তির বিষয় প্রত্যাখ্যান করছে।

 

সরকার মনে করেন, আইএসআইএল’র আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে এসব হত্যকাণ্ড ঘটানো হচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে এসব হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে ইসলামী উগ্রপন্থিরা। তবে দেশে কোন আইএস জঙ্গি নেই বলে জানিয়েছে সরকার প্রশাসনসহ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

 

টাইমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সপ্তাহান্তে একজন হিন্দুকে হত্যার অভিযোগে বাংলাদেশে আটক করা হয়েছে তিনজনকে। এসব হত্যার দায় স্বীকার করেছে আইএসআইএল’র মতো উগ্রপন্থিরা।

 

গতকাল নিখিল জোয়ারদারকে হত্যার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে যাদের গ্রেফতার করা হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে স্থানীয় জামায়াতে ইসলামীর একজন নেতা ও বিরোধী দল বিএনপির একজন নেতা। আইএসআইএল এ হামলার দায় স্বীকার করেছে। বরাবরের মতোই বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী গ্রুপের উপস্থিতি নেই বলে দাবি করছে বাংলাদেশ।

 

এর আগে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইসলামী জঙ্গি তৎপরতা দমনে সরকারকে সহযোগিতা আশ্বাস দিয়েছে।

 

বাংলাদেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সামাল দিতে হাসিনা সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন দৈনিক দিনকাল পত্রিকার সম্পাদক ড. রেজোয়ান সিদ্দিকী।

 

অনুরূপ মন্তব্য করেন ইসলামী ঐক্যজোটের মহাসচিব মুফতি ফয়জুল্লাহ। তিনি সকল বৈধ রাজনৈতিক দল নিয়ে একটা জাতীয় সংলাপের মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের পরামর্শ দেন।

 

কোন কোন হত্যার জন্য ইসলামী উগ্রপন্থিদের দায় করা প্রসঙ্গে মুফতি ফয়জুল্লাহ বলেন, ইসলাম আইনকে নিজের হাতে তুলে নেয়াটা যেমন অনুমোদন করে না তেমনি ব্যক্তি মানুষকে হত্যা করাও সমর্থন করে না।

 

এদিকে, বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, দেশে সংঘটিত হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করতে বিদেশি সহায়তার কোনো দরকার নেই।

 

রোববার রাতে নরসিংদী জেলার শিবপুর উপজেলা পরিষদ মাঠে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

 

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা সব ষড়যন্ত্র উদঘাটন করেছি। সঠিক লোক ও সঠিক দলটিকে চিহ্নিত করতে পেরেছি। একে একে এসব অপরাধীদেরকে আইনের আওতায় এনে বিচারের মুখোমুখি করছি। এ কারণেই বলব যে, কোনো সাহায্য আমাদের দরকার নাই।

 

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের মানুষ ধর্মভীরু, ধর্মান্ধ নয়। আমরা পাকিস্তানে ছিলাম, পাকিস্তানকে বিদায় করে দিয়েছি, তারাও তো মুসলমানই ছিল। আমরা তাদের বিশ্বাস করি না, তাই তাদের তাড়িয়ে দিয়েছি। আমরা মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশ স্বাধীন করেছি। তারা এখন পাকিস্তান, আমরা বাংলাদেশ। আইএসের মতো ‘ইসলাম ধর্ম সব মিলিয়ে এক দেশ’, এগুলো আমাদের দেশের মানুষ বিশ্বাস করে না।’#

 

আবদুর রহমান খান/আশরাফুর রহমান/২

 

 

 

 

মাধ্যম

মন্তব্য লিখুন


Security code
রিফ্রেস দিন