এই ওয়েবসাইটে আর আপডেট হবে না। আমাদের নতুন সাইট Parstoday Bangla
বুধবার, 04 মে 2016 19:24

গুপ্তহত্যা চক্রান্তের অংশ- ইনু: সরকারের ব্যর্থতা ঢাকার অপচেষ্টা- খোকন

হাসানুল হক ইনু-খায়রুল কবির খোকন হাসানুল হক ইনু-খায়রুল কবির খোকন

বাংলাদেশ সরকারের তথ্যমন্ত্রী ও জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেছেন, 'গুপ্তহত্যার ঘটনা আসলে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বানচাল, দেশকে অস্থিতিশীল করা ও শেখ হাসিনার সরকার উৎখাতের অপচেষ্টায় বড় রাজনৈতিক চক্রান্তের অংশ।'

 

মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় জাদুঘর মিলনায়তনে শহীদ জননী জাহানারা ইমামের ৮৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির আহবায়ক শাহরিয়ার কবির অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।

 

জাহানারা ইমামের স্মৃতির উদ্দেশ্যে সম্মান জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, একাত্তরের পর রাজাকারদের বিচারের দাবিতে শহীদ জননী জাহানারা ইমামের আন্দোলনের মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের ২য় পর্বের সূচনা হয়।

 

দেশে গুপ্তহত্যা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, 'যতদিন সন্ত্রাসী জামায়াত ও জঙ্গিদের সাথে বিএনপির মিত্রতা থাকবে, ততদিন গুপ্তহত্যা ও জঙ্গি-সন্ত্রাসের ঘটনায় খালেদা জিয়া ও বিএনপি সন্দেহের তালিকায় থাকবে। বিএনপি-জামাতের ছাতার নিচেই জঙ্গি পুনঃউৎপাদনের কারখানা। সে কারণে সমাজ ও রাজনীতিকে নিরাপদ করতে গুপ্তহত্যাকারী, জঙ্গি ও এদের পাহারাদারদের দমন অনিবার্য।'

 

হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘যারা ব্লগার-প্রকাশক-শিক্ষক হত্যাকারী, তারাই আগুন সন্ত্রাসী, তারাই একাত্তর, পঁচাত্তর, গ্রেনেড হামলার খুনি, এদের বিচার হবেই।’

 

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এ দেশে পাকিস্তানপন্থি রাজাকারদের বিচার যেমন সম্ভব, তেমনি আগুন সন্ত্রাসী, গুপ্তহত্যাকারীদের বিচার এবং মাদ্রাসাভিত্তিক শিক্ষার আধুনিকায়নও সম্ভব এবং তা বাস্তবায়নের মাধ্যমে জাহানারা ইমামসহ সকল শহীদ জননীর প্রতি সম্মান জানানো সম্ভব। প্রয়োজন ঐক্যের।’

 

বাংলাদেশের সন্ত্রাস ও গুপ্ত হত্যা প্রসঙ্গে হাসানুল হক ইনুর বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপি’র তরুণ নেতা খায়রুল কবির খোকন। তিনি রেডিও তেহরানকে বলেন, দেশের আইনশৃংখলা রক্ষায় সরকারের চরম ব্যর্থতা ঢাকতে আজ তারা বিরোধী পক্ষের ওপর দায় চাপানোর অপচেষ্টা করছে।

 

একই বিষয়ে ২০ দলীয় জোটের শরীক বাংলাদেশ জাতীয় দলের সভাপতি সৈয়দ এহসানুল হুদা রেডিও তেহরানকে বলেন, গুপ্তহত্যার মাধ্যমে যাদের রাজনীতিতে আগমন সেই জাসদের নেতার কাছ থেকে জনগণ এ ব্যাপরে উপদেশ শুনতে আগ্রহী নন।

 

বাংলাদেশের আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ে যখন দেশবাসী দারুণভাবে উৎকণ্ঠিত, আন্তর্জাতিক মহল তাদের উদ্বেগ প্রকাশ করছেন, তখন একতরফা বিরোধী দলের ওপর দোষ চাপিয়ে সরকার তার দায়-দায়িত্ব এড়াতে পারে না।

 

জনগণ এ দোষ চাপানো বক্তৃতা শোনার চেয়ে বরং দেখতে চায় পরিস্থিতির উন্নয়নে কী কী কার্যকর ব্যবস্থা নিচ্ছে সরকার। #

 

আবদুর রহমান খান/আশরাফুর রহমান/৪

 

 

মাধ্যম

মন্তব্য লিখুন


Security code
রিফ্রেস দিন