এই ওয়েবসাইটে আর আপডেট হবে না। আমাদের নতুন সাইট Parstoday Bangla
বৃহস্পতিবার, 17 ডিসেম্বর 2015 12:41

সর্বোচ্চ নেতার চিঠি সত্য- মিথ্যাকে আলাদা করার মানদণ্ড: ইব্রাহিম বিরাম

সর্বোচ্চ নেতার চিঠি সত্য- মিথ্যাকে আলাদা করার মানদণ্ড: ইব্রাহিম বিরাম

১৭ ডিসেম্বর (রেডিও তেহরান): পশ্চিমা যুবসমাজের প্রতি লেখা ইরানের সর্বোচ্চ নেতার দ্বিতীয় চিঠি সম্পর্কে লেবাননের বিশিষ্ট রাজনৈতিক বিশ্লেষক ইব্রাহিম বিরাম বলেছেন, এই চিঠি সত্য ও মিথ্যাকে আলাদা করার মানদণ্ড।

 

তিনি বলেছেন, বিশ্বের যুবসমাজের মধ্যে বিচ্যুতি ও সন্ত্রাসবাদ বিস্তারের প্রেক্ষাপটে ইরানের সর্বোচ্চ নেতার এই চিঠি যেন অন্ধকার এই বিশ্বকে আলোকিত করার এক উজ্জ্বল প্রদীপ।

 

পাশ্চাত্যের পুঁজিবাদী সমাজ-ব্যবস্থা পতনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে- এ কথা তুলে ধরে ইব্রাহিম বিরাম বলেছেন, ইরানের সর্বোচ্চ নেতার এই চিঠি পাশ্চাত্যের কাছে নতুন দৃষ্টিভঙ্গি ও ব্যবস্থার পথ খুলে দিয়েছে। তিনি পশ্চিমা যুব সমাজের কাছে পাঠানো এই চিঠিকে বিশ্বজনীন বলেও মন্তব্য করেছেন।

 

এদিকে, আজারবাইজানের বাকু বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রমজান আসলানেভ মনে করেন ইরানের সর্বোচ্চ নেতার দ্বিতীয় ঐতিহাসিক চিঠি খুবই যৌক্তিক সময়ে লেখা হয়েছে এবং দূরদর্শিতাপূর্ণ এই চিঠি পশ্চিমা যুবসমাজকে চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি করেছে।

 

অধ্যাপক রমজান আসলানেভ বলেছেন, পাশ্চাত্যে একপেশে বিষাক্ত প্রচারণার কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠিত হয়ে আছে। আর এইসব সাম্রাজ্যবাদী মিডিয়ার প্রচারণার বিপরীতে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা বিশ্বের যুব সমাজকে সন্ত্রাসীদের নেপথ্যের নানা রহস্য ও লক্ষ্যগুলো খুঁজে বের করার আহ্বান জানিয়েছেন।

 

বাকু বিশ্ববিদ্যালয়ের এই অধ্যাপক আরও জানিয়েছেন, ইরানের সর্বোচ্চ নেতার এই চিঠি প্রচারের কারণে পাশ্চাত্যে কোনো কোনো ইন্টারনেট ইউজারের পেইজ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। পাশ্চাত্যে সামাজিক নেটওয়ার্ক ও টেলিভিশন চ্যানেলগুলোসহ নানা গণমাধ্যমে ইসলামী মিডিয়াগুলোর বক্তব্য প্রচার করা হয় না। আর এইসব বক্তব্য শ্বাসরূদ্ধ করে এবং কেবল নিজেদের মতাদর্শ ও চিন্তাধারা প্রচার করে পাশ্চাত্য এক্ষেত্রে একচেটিয়া কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করে রেখেছে বলে রমজান আসলানেভ মনে করেন।#

 

রেডিও তেহরান/এআর/১৭

মন্তব্য লিখুন


Security code
রিফ্রেস দিন