এই ওয়েবসাইটে আর আপডেট হবে না। আমাদের নতুন সাইট Parstoday Bangla
বুধবার, 20 জানুয়ারী 2016 14:26

‘পরমাণু সমঝোতা আমেরিকার দয়া নয়, ইরানের প্রচেষ্টার ফল’

‘পরমাণু সমঝোতা আমেরিকার দয়া নয়, ইরানের প্রচেষ্টার ফল’

২০ জানুয়ারি (রেডিও তেহরান): ছয় জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে তেহরানের পরমাণু সমঝোতা অর্জিত হয়েছে ইরানি জনগণ ও পরমাণু বিজ্ঞানীদের নিরলস প্রচেষ্টার ফলে; আমেরিকার অনুকম্পার কারণে নয়। একথা বলেছেন ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী।

 

ইরানের নির্বাচনি কর্মকর্তারা আজ (বুধবার) তেহরানে সর্বোচ্চ নেতার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এক ভাষণে এসব কথা বলেন।

 

সর্বোচ্চ নেতা বলেন, “কেউ কেউ এটা বোঝানোর চেষ্টা করছেন যে, মার্কিন সরকার আমাদের প্রতি এক ধরনের দয়া দেখিয়েছে বলে পাশ্চাত্যের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতা অর্জিত হয়েছে। কিন্তু বাস্তবতা মোটেও সেরকম নয়।”

 

আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেন, “পরমাণু সমঝোতা ছিল একটি গুরুত্বপূর্ণ ও মহান অর্জন। এতে আমাদের সবগুলো দাবি পূরণ করা না হলেও এসব দাবির একটা বড় অংশ আদায় হয়েছে। এই সাফল্য এসেছে আমাদের পরমাণু আলোচক দল, পররাষ্ট্রমন্ত্রী (মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ) ও প্রেসিডেন্টের (ড. হাসান রুহানি) নিরসল প্রচেষ্টার কারণে।”

 

তিনি আরো বলেন, “এই সমঝোতা অর্জনের পেছনে ইরানের জনগণের অবদানও কম নয়। তবে ব্যক্তিগতভাবে আমি মনে করি এর চেয়েও ভালো করা সম্ভব ছিল; কারণ আমাদের সামর্থ্য, সুযোগ ও সক্ষমতা এর চেয়ে বেশি। তারপরও যতটুকু অর্জিত হয়েছে তাও অনেক বড় ব্যাপার।”

 

২০১৫ সালের ১৪ জুলাই জাতিসংঘের পাঁচ স্থায়ী সদস্যদেশ ও জার্মানির সমন্বয়ে গঠিত ছয় জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে চূড়ান্ত পরমাণু সমঝোতা সই করে ইরান। গত শনিবার ওই চুক্তির বাস্তবায়ন শুরু হয় এবং ওইদিন পরমাণু কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে তেহরানের ওপর আরোপিত সব আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেয় পশ্চিমা দেশগুলো।#

 

রেডিও তেহরান/এমআই/২০

 

মন্তব্য লিখুন


Security code
রিফ্রেস দিন